kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

সেন্ট মার্টিনসে ভেসে এলো মরা কাছিম

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার   

৭ জানুয়ারি, ২০১৮ ০১:১৯



সেন্ট মার্টিনসে ভেসে এলো মরা কাছিম

প্রবাল দ্বীপ সেন্ট মার্টিনসে গতকাল শনিবার সকালে একটি মরা সামুদ্রিক কাছিম জোয়ারের পানিতে ভেসে এসেছে। বড় আকারের কাছিমটি ভেসে এসে জেটি ঘাটের পাশে সৈকতের চরে আটকা পড়ে। কাছিমটি খাওয়ার জন্য দ্বীপের কুকুরগুলো মরিয়া হয়ে ওঠে।

সেন্ট মার্টিনস দ্বীপের ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ গতকাল রাতে জানান, প্রতিবছর শীত মৌসুমে অসংখ্য মরা কাছিম ভেসে আসে তীরে। চলতি মৌসুমে এই প্রথম একটি মরা কাছিম ভেসে আসার খবর পাওয়া গেল। তিনি জানান, গতকাল সকালে মরা কাছিমটি ভেসে এসে দ্বীপের বালুচরে আটকা পড়ে। পরে শত শত কুকুর ঝাঁপিয়ে পড়ে কাছিমটির ওপর।

সেন্ট মার্টিনসে সাত হাজার বাসিন্দার পাশাপাশি বর্তমানে চার হাজারের বেশি বেওয়ারিশ কুকুর রয়েছে। বেওয়ারিশ কুকুর নিধনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং পরিবেশ অধিদপ্তরের কাছে ধরনা দিয়েও কোনো লাভ হয়নি বলে জানান তিনি।

এদিকে দ্বীপে কাছিমের ডিম সংরক্ষণে নিয়োজিত ক্লাইমেট রেজিলিয়েন্ট ইক্যু সিস্টেম অ্যান্ড লাইভলি হুড-ক্রেলের স্থানীয় কর্মকর্তা খান মুহাম্মদ মুজাহিদ ইবনে হাবিব জানান, 'কাছিমের ডিমপাড়ার মৌসুমে গতকাল প্রথম একটি মরা কাছিম ভেসে এসেছে।' তিনি বলেন, ডিসেম্বর থেকে মার্চ পর্যন্ত গভীর সাগরের কাছিম ডিম পাড়তে চরে উঠে আসে। এ সময় অনেক কাছিম মারা পড়ে। দ্বীপের কুকুরগুলো এ সময় তীর্থের কাকের মতো অপেক্ষায় থাকে কাছিম খাওয়ার জন্য। এ বছর কাছিমের মৃত্যু কম হয়েছে, এটি একটি সুখবর।

তিনি আরো জানান, ২০১৪ থেকে গত বছর পর্যন্ত দ্বীপে কাছিমের ডিম সংগ্রহ করা হয়েছিল দুই হাজার ৬৮১টি। এর মধ্যে দুই হাজার ৪০১টি ডিমের বাচ্চা ফুটানোর পর সাগরে ছেড়ে দেওয়া হয়। চলতি মৌসুমের গত দুই মাসে ৩২০টি ডিম সংগ্রহ করা হয়েছে।


মন্তব্য