kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট নির্বাচন নিয়ে হলুদ দলে বিভাজন

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৭ নভেম্বর, ২০১৭ ০৫:৩২



চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট নির্বাচন নিয়ে হলুদ দলে বিভাজন

ফাইল ছবি

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে আওয়ামী ও বামপন্থী শিক্ষকদের সংগঠন হলুদ দলে বিভাজন তৈরি হয়েছে। আগামী ৩ ডিসেম্বরের সিনেট, সিন্ডিকেট, একাডেমিক কাউন্সিল ও ফিন্যান্স কমিটির শিক্ষক প্রতিনিধি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দেখা দিয়েছে এ বিভাজন।

দলের একাধিক শিক্ষকের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক, সহকারী অধ্যাপক ও প্রভাষক ক্যাটাগরিতে সিন্ডিকেটে চারটি শিক্ষক পদ রয়েছে। এর মধ্যে তিনটি ক্যাটাগরিতে দল থেকে মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীকে সবাই সমর্থন দিয়েছেন। কিন্তু সহকারী অধ্যাপক ক্যাটাগরিতে মনোনয়ন পাওয়া শিক্ষকের বাইরেও দলের আরো দুই শিক্ষক স্বতন্ত্রভাবে ওই পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

জানা যায়, সিন্ডিকেটের সহকারী অধ্যাপক পদে সমাজতত্ত্ব বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মুহাম্মদ রেদোয়ান মোস্তফাকে হলুদ দল থেকে মনোনয়ন দেওয়া হয়। কিন্তু এর বাইরে গিয়ে ‘বিদ্রোহী’ প্রার্থী হিসেবে গতকাল বৃহস্পতিবার মনোনয়নপত্র জমা দেন লোকপ্রশাসন বিভাগের মুহাম্মদ ইয়াকুব ও নৃবিজ্ঞান বিভাগের এম এম সাদাত আল সাজীব।    

এম এম সাদাত আল সাজীব বলেন, ‘আমরা দল থেকে মনোনয়ন না পেলেও দলের বাইরের কেউ নই, দলেরই একজন। বৃহত্তর শিক্ষকদের মর্যাদার স্বার্থে নিজের অবস্থানে থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়েছি। ’ দল থেকে মনোনয়ন দেওয়ার ক্ষেত্রে শিক্ষকদের মতের প্রতিফলন ঘটেনি বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

নিজেকে ছাত্রলীগের সাবেক নেতা হিসেবে দাবি করে মুহাম্মদ ইয়াকুব বলেন, ‘একটু খোঁজখবর নিলেই জানতে পারবেন, দল থেকে মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থী একসময় ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

নিয়মিত মিছিল-মিটিংও করেছেন। ’

দলের বাইরে গিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার বিষয়ে হলুদ দলের আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. সুলতান আহমেদ বলেন, ‘বলার তো কিছু নাই। বন্ধুবান্ধবরা এমন করছে। আমি তাদের ডেকে কথা বলব। এটা সমাধান হয়ে যাবে। আশা করি, তাঁরা মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেবেন। ’ মনোনয়ন পাওয়া শিক্ষক একসময়ে ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন—এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এটি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। ’

 

 


মন্তব্য