kalerkantho

দ্বিতীয় রাজধানী প্রতিদিন

চট্টগ্রামে অস্ত্র উঁচিয়ে গুলি

নেতাকর্মীদের হাতে নাজেহাল যুবলীগ চেয়ারম্যানের ভাই

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০৩:৩৯



নেতাকর্মীদের হাতে নাজেহাল যুবলীগ চেয়ারম্যানের ভাই

চট্টগ্রামে বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটার লাগানো নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে যুবলীগকর্মীদের হাতে শারীরিকভাবে নজেহাল হয়েছেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান ওমর ফারুকের বড় ভাই আবু বক্কর সিদ্দিক। এ সময় যুবলীগকর্মীরা আবু বক্করের ছেলেসহ কয়েকজনকে মারধর করে এবং প্রকাশ্যে অস্ত্র উঁচিয়ে গুলি ছুড়ে পুরো এলাকায় ত্রাস সৃষ্টি করে।

 

গত শনিবার রাতে নগরীর চকবাজার থানার মেহেদীবাগ শহীদ মীর্জা লেনে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।  

ঘটনার বিষয়ে চকবাজার থানার ওসি মীর নুরুল হুদা জানান, বিদ্যুতের প্রিপেইড মিটার লাগানো নিয়ে বাড়ির মালিক ও ভাড়াটিয়ার মধ্যে বিরোধের জের ধরে এ ঘটনা ঘটেছে। মালিকের পক্ষ থেকে থানায় একটি অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  

যুবলীগের কেন্দ্রীয় চেয়ারম্যান ওমর ফারুকের বড় ভাই আবু বক্কর সিদ্দিক জানান, তাদের প্রতিবেশী বয়োবৃদ্ধ হাজি ইউনুসের বাড়ির ভাড়াটিয়া যুবলীগ নেতা বেলালের সঙ্গে মিটার লাগনো নিয়ে বিরোধ বাধে। বেলাল মিটারের বাইরে সরাসরি বৈদ্যুতিক লাইন ব্যবহার করে আসছেন।

তিনি আরো জানান, শনিবার রাতে বেলালের নির্দেশে ২৫-৩০ জন যুবক নিজেদের যুবলীগ নেতাকর্মী পরিচয় দিয়ে হাজি ইউনুসের বাসায় হামলা চালায়। এ সময় তারা হাজি ইউনুস, তার স্ত্রী ও ছেলেকে মারধর করে।

ঘটনার সময় তারা এগিয়ে গেলে যুবলীগ নামধারী সশস্ত্র যুবকরা তাঁদের সঙ্গেও দুর্ব্যবহার করে। তার ছেলে তানভীর সিদ্দিকী ও শ্যালককে মারধর করে। এ সময় তারা ১০-১২ রাউন্ড গুলি ছোড়ে।  

স্থানীয় লোকজন জানায়, বাগমনিরাম ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা আরিফুল ইসলাম মাসুম, যুবলীগ নেতা ও সিডিএ শ্রমিক কর্মচারী লীগের সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন, যুবলীগ নেতা বেলাল, আক্কাস ও তাদের সহযোগীরা হামলা চালায়। তারা কোতোয়ালি থানা শাখা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাসান মনসুরকেও মারধর করে। তাদের হাত থেকে রেহাই পাননি ক্রিকেটার নাজিম উদ্দিন মান্না।  

জানতে চাইলে চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন বাচ্চু বলেন, আমি নিজেই ওনার (আবু বক্কর সিদ্দিক) বাসায় গিয়ে বিষয়টি মীমাংসা করে দিয়েছি।


মন্তব্য