logo
আপডেট : ৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০০:০৫
উনের উদ্দেশে ট্রাম্প
আমার পরমাণু সুইচ আরো বড়, আরো শক্তিশালী

আমার পরমাণু সুইচ আরো বড়, আরো শক্তিশালী

ডোনাল্ড ট্রাম্প, কিম জং উন

‘পরমাণু অস্ত্রের সুইচ সব সময় আমার টেবিলেই আছে’, উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের এমন হুমকির জবাবে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, তাঁর কাছেও পরমাণু অস্ত্রের সুইচ আছে এবং সেটা আরো বড় আর শক্তিশালী।

উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা উন গত সোমবার বলেন, তাঁর টেবিলে পরমাণু অস্ত্রের সুইচটা সব সময় প্রস্তুত আছে। পরদিন মঙ্গলবার করা এক টুইটে ট্রাম্প লেখেন, ‘তাঁর (উনের) ক্ষয়ে যাওয়া আর প্রচণ্ড ক্ষুধার্ত প্রশাসনে এমন কেউ কি আছেন, যিনি তাঁকে বলবেন যে আমার কাছেও একটা পরমাণু সুইচ আছে, কিন্তু তাঁর সুইচের চেয়ে সেটা আরো বড় এবং আরো শক্তিশালী, আর আমার সুইচটা কাজ করে।’ উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কার্যক্রম নিয়ে উনের সঙ্গে বেশ কিছুদিন ধরে বাগ্যুদ্ধ চালাচ্ছেন ট্রাম্প। তাঁর এবারের টুইটকেও বাগিবতণ্ডা হিসেবেই দেখছে সংবাদমাধ্যমগুলো। 

আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা নিজেদের ক্ষেপণাস্ত্র সক্ষমতা বাড়াতে কাজ করে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। গত বছর তারা ষষ্ঠবারের মতো পরমাণু অস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালায়। আন্তর্মহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষায়ও সফলতা দেখায় তারা। আর গত নভেম্বরে উন দাবিন করেন, তাঁর দেশ এখন পরমাণু অস্ত্রশক্তির অধিকারী এবং যুক্তরাষ্ট্রের যেকোনো জায়গায় হামলার সক্ষমতা তাঁদের আছে। পরমাণু ক্ষেপণাস্ত্র ইস্যুতে উন-ট্রাম্প কথাই লড়াই চলছিল আগে থেকেই। উত্তর কোরিয়াকে ধ্বংস করে ফেলার হুমকিও ট্রাম্প দিয়ে রেখেছেন। উনের ওই ঘোষণার পর ট্রাম্পের হুমকি-ধমকি আরো বেড়েছে।

পর্যবেক্ষকরা অবশ্য এখনো উত্তর কোরিয়ার পরমাণ অস্ত্র উেক্ষপণের সক্ষমতা নিয়ে সন্দিহান। হাজার মাইলের দূরত্ব অতিক্রম করতে পারলেও পিয়ংইয়ংয়ের ক্ষেপণাস্ত্রগুলো অভীষ্ট লক্ষ্যে ঠিকঠাক আঘাত হানতে পারবে কি না, সে ব্যাপারে তাদের মধ্যে প্রশ্ন আছে।

উত্তর-দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে হটলাইন চালু : ১৯৫০-এর দশকে কোরিয়া যুদ্ধের মধ্য দিয়ে আলাদা হওয়ার পর থেকে সব সময় পরস্পরের দিকে অস্ত্র তাক করে থাকা উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে গতকাল বুধবার হটলাইন যোগাযোগ চালু হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র গত মঙ্গলবার পিয়ংইয়ং-সিউলের মধ্যে উচ্চপর্যায়ের আলোচনার সম্ভাবনা একেবারে উড়িয়ে দেওয়ার পরদিন প্রতিবেশী দেশ দুটি নিজেদের দীর্ঘদিনের বিচ্ছিন্ন যোগাযোগ চালু করল। স্থানীয় সময় গতকাল সকাল সাড়ে ৬টায় উভয় পক্ষের মধ্যকার হটলাইন নম্বর চালু করা হয়। সূত্র : এএফপি, বিবিসি।

 

সম্পাদক : ইমদাদুল হক মিলন,
নির্বাহী সম্পাদক : মোস্তফা কামাল,
ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের পক্ষে ময়নাল হোসেন চৌধুরী কর্তৃক প্লট-৩৭১/এ, ব্লক-ডি, বসুন্ধরা, বারিধারা থেকে প্রকাশিত এবং প্লট-সি/৫২, ব্লক-কে, বসুন্ধরা, খিলক্ষেত, বাড্ডা, ঢাকা-১২২৯ থেকে মুদ্রিত।
বার্তা ও সম্পাদকীয় বিভাগ : বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, প্লট-৩৭১/এ, ব্লক-ডি, বারিধারা, ঢাকা-১২২৯। পিএবিএক্স : ০২৮৪০২৩৭২-৭৫, ফ্যাক্স : ৮৪০২৩৬৮-৯, বিজ্ঞাপন ফোন : ৮১৫৮০১২, ৮৪০২০৪৮, বিজ্ঞাপন ফ্যাক্স : ৮১৫৮৮৬২, ৮৪০২০৪৭। E-mail : info@kalerkantho.com