logo
আপডেট : ১৮ মার্চ, ২০১৬ ০০:৫২
জেনেভা ক্যাম্পে সংঘর্ষ

জেনেভা ক্যাম্পে সংঘর্ষ

রাজধানীর জেনেভা ক্যাম্পে গতকাল দুই গ্রুপের সংঘর্ষে প্রচুর ইটপাটকেল ছোড়া হয়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। ছবি : কালের কণ্ঠ

রাজধানীর মোহাম্মদপুরের জেনেভা ক্যাম্পে স্থানীয় দুটি পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে পুলিশসহ অন্তত ১২ জন আহত হয়েছে। মাদক ব্যবসা, আধিপত্য বিস্তারসহ আরো কয়েকটি কারণে এ ঘটনা ঘটে বলে প্রাথমিক তদন্তে জানতে পেরেছে পুলিশ।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, মাদক বিক্রির একটি স্পটের দখল নিয়ে গত বুধবার দিবাগত রাত ১টার দিকে বিহারি ক্যাম্পের দুই পক্ষের কয়েকজনের মধ্যে প্রথমে হাতাহাতি হয়। পরে দুই পক্ষের লোকজনের মধ্যে রাত ৩টা পর্যন্ত থেমে থেমে সংঘর্ষ হয়। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলেও রাতের মারামারির জের ধরে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত দুই পক্ষ ফের সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। ইট-পাথর ছোড়াছুড়ির পাশাপাশি তারা বাঁশের লাঠি ও দেশি ধারালো অস্ত্র ব্যবহার করে। সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশের পাশাপাশি র্যাবও কাজ করেছে। গতকাল বিকেলে পরিস্থিতি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে আসে।

সার্বিক বিষয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের মোহাম্মদপুর  জোনের সহকারী কমিশনার (এসি) হাফিজ আল ফারুক বলেন, মাদক, জমি, বাড়ি ও ব্যবসাসংক্রান্ত দ্বন্দ্বসহ অভ্যন্তরীণ নানা কারণে জেনেভা ক্যাম্পের বাসিন্দারা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। তারা রাস্তা অবরোধ করে মারামারি করে এলাকায় ভীতিকর পরিস্থিতি সৃষ্টি করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে গেলে পুলিশকেও লক্ষ্য করে ইট-পাথর ছোড়ে তারা। তবে পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রণে। ঘটনার তদন্ত চলছে। তবে গতকাল পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলে, গতকাল সকাল থেকে পুলিশের উপস্থিতিতেই দুই পক্ষের লোকজনের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া এবং ইট-পাথর ছোড়াছুড়ি চলে। ওই সময় সংঘর্ষকারীদের কারো কারো কাছে ধারালো ছুরি-চাকুর পাশাপাশি আগ্নেয়াস্ত্রও ছিল বলে স্থানীয়রা জানিয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ কয়েক রাউন্ড টিয়ার গ্যাসের শেল ও রাবার বুলেট ছোড়ে। একপর্যায়ে স্থানীয়রা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাথর নিক্ষেপ করে। এতে কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হন। সংঘর্ষের সময় দুই পক্ষের বেশ কয়েকজন আহত হয়। স্থানীয় বিভিন্ন ক্লিনিক ও হাসপাতালে আহতরা চিকিত্সা নিয়েছে বলে জানা গেছে।

গতকাল ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায়, জেনেভা ক্যাম্পের গলির রাস্তার পুরোটাই ভাঙা ইট-পাথরে ছেয়ে গেছে। ওই পথ দিয়ে কোনো যানবাহন চলার অবস্থা নেই। চারপাশে পুলিশ। স্থানীয়রা আতঙ্কিত। ঘটনার কারণ জানতে চাইলে স্থানীয় মুরব্বি মোজাফফর হোসেন বলেন, জেনেভা ক্যাম্পে ১০-১২টি সেক্টরে স্বার্থসংশ্লিষ্ট নানা কারণে নিজেদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। ছোট ছোট কয়েকটি গ্রুপ এসব বিরোধ সৃষ্টি করে এলাকায় অধিপত্য বিস্তার করছে। এদের মধ্যে একটি গ্রুপের নাম ‘শান্তি’। তবে নামে শান্তি হলেও বিভিন্ন কারণে এদের কাছে এলাকাবাসী অনেকটা জিম্মি। নিজেদের দ্বন্দ্বে শান্তি গ্রুপ ভেঙে আজম ও আনোয়ার গ্রুপ তৈরি হয়। সম্প্রতি দুই গ্রুপের মধ্যে স্বার্থ নিয়ে বিরোধ সৃষ্টি হয়। তারা সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়লে পুরো এলাকার সার্বিক পরিবেশের ওপর প্রভাব পড়ে।

সম্পাদক : ইমদাদুল হক মিলন,
নির্বাহী সম্পাদক : মোস্তফা কামাল,
ইস্ট ওয়েস্ট মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের পক্ষে ময়নাল হোসেন চৌধুরী কর্তৃক প্লট-৩৭১/এ, ব্লক-ডি, বসুন্ধরা, বারিধারা থেকে প্রকাশিত এবং প্লট-সি/৫২, ব্লক-কে, বসুন্ধরা, খিলক্ষেত, বাড্ডা, ঢাকা-১২২৯ থেকে মুদ্রিত।
বার্তা ও সম্পাদকীয় বিভাগ : বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, প্লট-৩৭১/এ, ব্লক-ডি, বারিধারা, ঢাকা-১২২৯। পিএবিএক্স : ০২৮৪০২৩৭২-৭৫, ফ্যাক্স : ৮৪০২৩৬৮-৯, বিজ্ঞাপন ফোন : ৮১৫৮০১২, ৮৪০২০৪৮, বিজ্ঞাপন ফ্যাক্স : ৮১৫৮৮৬২, ৮৪০২০৪৭। E-mail : info@kalerkantho.com