kalerkantho


সরল থেমিসের ভাস্কর্য

৩১ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



হেফাজতে ইসলামসহ ধর্মভিত্তিক কয়েকটি দলের দাবির মুখে সুপ্রিম কোর্ট চত্বর থেকে ন্যায়বিচারের প্রতীক গ্রিক থেমিসের মূর্তি অপসারণ করা হয় ২৬ মার্চ মধ্যরাতে। এক রকম গোপনে ধর্মভিত্তিক দলগুলোর দাবির মুখে কর্তৃপক্ষ এই সিদ্ধান্ত নেয়। ভাস্কর্যটি না সরালে আন্দোলনের হুমকি দিয়ে আসছিল ধর্মভিত্তিক দলগুলো। এ নিয়ে বিভিন্ন সময় বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে ওই সব দল। তবে একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটিসহ বিভিন্ন সংগঠন ও প্রগতিশীল ব্যক্তিরা ভাস্কর্যটি অপসারণের বিরোধিতা করে আসছিলেন।

ফেব্রুয়ারিতে হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফী সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে ভাস্কর্যটি অপসারণের দাবিতে বিভিন্ন গণমাধ্যমে বিবৃতি পাঠিয়েছিলেন। ওই বিবৃতির পর থেকে ভাস্কর্যটি সরানোর দাবিতে আন্দোলন চালিয়ে আসছিল হেফাজতে ইসলাম। এই ‘মূর্তি’ সরানো না হলে আবারও শাপলা চত্বর ঘেরাওয়ের কর্মসূচি দেবেন বলে জানান হেফাজতে ইসলামের নেতারা। ২০১৬ সালের শেষ দিকে এ ভাস্কর্যটি সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে বসানো হয়। উগ্র ধর্মভিত্তিক দলগুলোর দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ভার্স্কয সরানোর প্রতিবাদ ও সমালোচনা করেন দেশের বিভিন্ন প্রগতিশীল সংগঠন ও বুদ্ধিজীবীরা। একে অনেকে মৌলবাদের সঙ্গে সরকারের আপস হিসেবে অভিযোগ তোলেন। অবশ্য ভাস্কর্যটি পরে কোর্টের পেছন দিকে পুনঃস্থাপন করা হয়। এই পুনঃস্থাপনের পরও তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন আল্লামা শফী।
 


মন্তব্য