kalerkantho


এবার গুপ্তচর

‘রেড স্প্যারো’তে খোলনলচে বদলে আবেদনময়ী চেহারায় জেনিফার লরেন্স। আগামীকাল মুক্তির অপেক্ষায় থাকা স্পাই থ্রিলার নিয়ে লিখেছেন হাসনাইন মাহমুদ

১ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



এবার গুপ্তচর

রুশ গুপ্তচর ডমিনিকার প্রেমে পড়ে সিআইএ এজেন্ট নাথানিয়েল। একপর্যায়ে ভালোবাসার জন্য পেশাদারি বিসর্জন দিতেও প্রস্তুত। দেশ ও ভালোবাসার টানাপড়েনের মোড়কে ফুটে উঠবে বর্তমান বিশ্বের চলমান অস্থিরতার গল্প। ডমিনিকা চরিত্রে জেনিফার লরেন্স এবং নাথানিয়েল চরিত্রে জোয়েল এডগার্টনের পাশাপাশি আরো অভিনয় করেছেন মেরি লুই পার্কার, জেরেমি আয়রন্স, শার্লট রাম্পলিংয়ের মতো অভিনেতারা।

২০১৩ সালে সাবেক সিআইএ এজেন্ট জেসন ম্যাথিউসের উপন্যাসটি প্রকাশের আগেই টোয়েন্টিয়েথ সেঞ্চুরি ফক্স কিনে নেয় সিনেমার স্বত্ব। উপন্যাসটিতে জেসন ম্যাথিউসের গুপ্তচরজীবনের যে সত্য অভিজ্ঞতার চিত্র ফুটে উঠেছে, তা-ই বড় পর্দার জন্য উপন্যাসটিকে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য আরাধ্যে পরিণত করে। শুরুতে পরিচালক হিসেবে ড্যারেন অ্যারোনফস্কি ও ডেভিড ফিঞ্চারের নাম শোনা গেলেও শেষ পর্যন্ত চুক্তিবদ্ধ হন ফ্রান্সিস লরেন্স। এই ছবি দিয়ে ‘হাঙ্গার গেমস’ পরিচালক-অভিনেত্রীর পুনর্মিলন হলো।

চলচ্চিত্রটির গল্প নিয়ে পরিচালক ফ্রান্সিস লরেন্স এতটাই মুগ্ধ ছিলেন যে তিনি নির্মাণের জন্য একটি সুপারহিরো চলচ্চিত্র নির্মাণের প্রস্তাবও নাকচ করে দেন! ফ্রান্সিস বলেন, ‘গুপ্তচরধর্মী চলচ্চিত্রের একই সূত্র থেকে বের হয়ে এটি যেন অনেকটাই জীবনঘনিষ্ঠ গল্প।’ পরিচালকের মতো উচ্ছ্বসিত লরেন্সও, ‘এই গল্পটি স্রেফ এক রুশ গুপ্তচরের গল্পই নয়, কর্তব্য ও ভালোবাসার টানাপড়েনে পোড় খাওয়া এক নারীর মানসিক দ্বন্দ্বের উপাখ্যান।’

ছবি মুক্তির আগেই নানা কারণে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছেন অভিনেত্রী।

বুদাপেস্টে চিত্রায়ণ চলাকালে পানশালায় এক নাছোড় ভক্তের সঙ্গে হাতাহাতি এবং বাফটার মঞ্চে জোয়ানা লামলির সঙ্গে ‘দুর্ব্যবহার’ করে নিন্দিত হন। এ ছাড়া লন্ডনের তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় খোলামেলা পোশাকে হাজির হওয়ায় সমালোচনার ঝড় ওঠে। তিনি এই সমালোচনাকে পুরুষতান্ত্রিক মনোভাব হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন।

‘জিরো ডার্ক থার্টি’, ‘দ্য গিফট’, ‘ব্রাইট’ ইত্যাদি ছবির জন্য জনপ্রিয় জোয়েল এডগার্টনেরও এবারই প্রথম গুপ্তচর চরিত্রে অভিনয়। ছোটবেলা থেকেই জেমস বন্ডের ভক্ত এ অভিনেতার স্বপ্নই ছিল একটি অসাধারণ গল্পে গুপ্তচরের ভূমিকায় অভিনয়। স্বপ্নটি পূরণ হওয়ায় বেশ খুশি তিনি।


মন্তব্য