kalerkantho


ভুল সবই ভুল

সবচেয়ে বেশি পিরামিড মিসরে

সবাই সত্যি জানে—এমন অনেক কথা পরে যাচাই করে দেখা গেছে সেগুলো মিথ্যা। লিখেছেন আসমা নুসরাত

২ ডিসেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



সবচেয়ে বেশি পিরামিড মিসরে

মিসরে পিরামিডের সংখ্যা ১৩৮, যেখানে সুদানে পিরামিডের সংখ্যা ২৫৫

যতই খারাপ লাগুক শুনতে, কিন্তু সত্য এই, সবচেয়ে বেশি পিরামিডের দেশ নয় মিসর। সর্বাধিক পিরামিডের মালিক দেশটির নাম সুদান।

মিসরে পিরামিডের সংখ্যা ১৩৮, সেখানে সুদানে পিরামিডের সংখ্যা ২৫৫। সুদানের পিরামিডগুলো তৈরি হয়েছে খ্রিস্টপূর্ব এক হাজার ৭০ থেকে ৩৫০ অব্দে, কুশ নামের রাজাদের শাসনামলে। তবে এগুলো তৈরি হয়েছে মিসরে পিরামিড তৈরি হওয়ার রেওয়াজ চালু হওয়ার ৫০০ বছর পরে। মিসরের শ্রেষ্ঠত্ব উচ্চতায়ও। কুশি পিরামিডগুলোর উচ্চতা ছয় থেকে ৩০ মিটার (২০ থেকে ৯৮ ফুট) পর্যন্ত। যেখানে মিসরের পিরামিডগুলোর গড় উচ্চতা ১৩৮ মিটার বা ৪৫৩ ফুট। তবে সবচেয়ে উঁচু পিরামিডটিও কিন্তু মিসরে নয়; বরং মেক্সিকোয়। আর কুশি পিরামিডগুলোর বহির্গাত্র সমান নয়; বরং ধাপযুক্ত। অন্যদিকে মিসরের পিরামিডগুলোর বহির্গাত্র মসৃণ। দুই দেশেই কিন্তু একই উদ্দেশ্যে পিরামিড তৈরি করা হয়েছে। শবদেহের আধার হিসেবে। তবে সুদানের পিরামিডগুলো নিয়ে বেশি গবেষণা হয়নি এখনো। অনেক প্রশ্নেরই উত্তর খোঁজা বাকি। যেমন মিসরিদের মতো একই পদ্ধতিতে কি পিরামিডগুলো তৈরি? বা একেকটি পিরামিড তৈরিতে সময় কেমন লেগেছে? আনন্দের খবর হলো প্রত্নতাত্ত্বিকরা এখন সুদানের দিকে নজর দেওয়ার সময় পেয়েছেন। তাঁরা ড্রোন ব্যবহার করে ছবি তোলার কাজ শুরু করে দিয়েছেন। সুদানের প্রাচীন শহর শুধু মেরোতেই  আছে প্রায় ২০০ পিরামিড। নুবিয়ান পিরামিড বলেই বেশি পরিচিত সুদানের পিরামিডগুলো। নুবিয়া হলো নীল নদের উপত্যকা।


মন্তব্য