kalerkantho


কী লিখলে?

ওপারেতে...

৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



স্কুল চলছে। টিফিন আওয়ার আশি আশি। মনটা উড়ু উড়ু। তবে আমি একা নই। সঙ্গে আরো অনেকেই উড়তে চায়। মানে টিফিনের পর আর ক্লাস না করার ইচ্ছা। মেইন গেইট দিয়ে পালানোর উপায় নেই। এ কাজে আমাদের প্রিয় রুট স্কুলের পাশের দেয়াল। ওটার ওপারেই যত সুখ আমাদের বিশ্বাস (ওপারেই মেইন রোড)। তো যথারীতি ঘণ্টা বাজতেই হেলেদুলে চললাম আমরা জনাকতক দলছুট। ব্যাগসহ দেয়াল বেয়ে ওঠা অসম্ভব। তাই আগে ব্যাগগুলো ছুড়ে ফেলা হোক। ছুড়ে দিলাম একটা। ধপ শব্দটা শুনতে পেলাম না। সম্ভবত নরম ঘাসে পড়েছে। ছোড়া হল আরো কয়েকটি ব্যাগ। এবার দেয়াল বেয়ে ওঠার পালা। প্রথমে যে উঠল সে মাঝপথে আটকে গেল। বাথরুম চাপল নাকি? না। ধীরে সুস্থে ওপারে নামল বন্ধুটা। আমিও উঠলাম। দেয়ালের ওপারে চোখ রাখতেই শিরদাঁড়া দিয়ে ঠাণ্ডা স্রোত বয়ে গেল। দেয়ালের ওপাশে স্যার! বুঝে গেলাম ব্যাগ ছুড়ে দেওয়ার পরও কেন শব্দ হয়নি। ব্যাগগুলো ক্যাচ ধরছিলেন তিনি! আমরা কয়েকজন পরে ইনিয়ে বিনিয়ে দৌড়ে পালালেও বেচারা ইকরাম রয়ে যায়। সবার পক্ষ থেকে কান ধরে ওঠবস করতে হয়েছিল ওকে।

নাহিদুল হক (১৭), ঢাকা।



মন্তব্য