kalerkantho


কী লিখলে?

সিয়ামের ঘুম

৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ০০:০০



সিয়ামের ঘুম

কবির স্যারের ক্লাস হয় খুব মজার। কিন্তু কিভাবে স্যারের ক্লাসে বেহুঁশ হয়ে ঘুমাচ্ছে সিয়াম! রাহাত উঠে দাঁড়াল—স্যাআআর...! সিয়াম ঘুমায়।

স্যারের প্রতিক্রিয়া নেই! কী আজব!

স্যার বললেন, হুঁশশশ। সবাই চুপ! ঘুমাচ্ছে ঘুমাক। তোমরা এক কাজ করো। সবাই ব্যাগ নিয়ে বাইরে উত্তর ভবনের বারান্দায় যাও।

স্যার বললেন, শোনো। যা বলব তা-ই তা-ই করবে। আমরা মাথা ঝাঁকালাম।

স্যার বললেন, যখন দেখবে সিয়াম এ সেকশনের দিকে যাচ্ছে, তখন সবাই যে যেভাবে বসেছিলে সেভাবেই আবার ক্লাসে এসে বসবে।

স্যার আমাদের ক্লাসের জানালার দিকে গেলেন। কিছুক্ষণ পর জানালায় টিং করে একটি শব্দ করে দ্রুত এ সেকশনে চলে গেলেন। সেখানে ক্লাস নিচ্ছিলেন মিজান স্যার। কিছুক্ষণ পর বেরিয়ে এলো সিয়াম। সে কিছু বুঝতে পারছে না। কিছুক্ষণ এদিক-সেদিক ফিরে এ সেকশনের দিকে যেতে লাগল।

‘স্যার, আসতে পারি?’

‘হ্যাঁ, আসো।’

‘স্যার, বি সেকশনে কেউ নাই।’

মিজান স্যার কবির স্যারের দিকে তাকিয়ে সিয়ামকে বললেন, বি সেকশনে কেউ নাই? এই ছেলে বলে কী! আপনি না ক্লাস করাচ্ছিলেন?

কবির স্যার বললেন, সিয়াম এ কী ধরনের ফাজলামি? ক্লাস ছেড়ে তুমি এখানে!

সিয়াম ঢোক গিলে বলল, ‘স্যার, বিশ্বাস করেন! আমার ক্লাসে কেউ নাই। পুরো ফাঁকা!’

চলো দেখে আসি।

স্যার সিয়ামকে নিয়ে ক্লাসে ঢুকলেন। আমরা সবাই ঠিক যেভাবে বসেছিলাম সেভাবেই আছি। স্যার সিয়ামকে বসতে বললেন। সিয়ামের চোখেমুখে অবিশ্বাসের ছাপ। ভয় পেয়েছে খুব।

কবির স্যার সিয়ামকে বললেন—তো সিয়াম, এখন কী বলবে? 

সিয়াম তোতলাতে তোতলাতে বলল, স্যাআ...।

শোনো সবাই। এর আগেও একবার এমনটা ঘটেছিল। ঠিক যেখানে সিয়াম  বসেছে, সেখানেই বসেছিল ওই ছাত্র। সিয়ামের মতোই অন্য সেকশনে গিয়ে বলেছিল যে তার ক্লাসে কাউকে দেখতে পাচ্ছে না। পরে জানা গেছে, ওটা ভূতের কারবার ছিল। এখানে সিয়ামের দোষ নেই।

আমাদের হাসি বাড়লেও সিয়ামের ভয় কাটে না। পরে ঘটনা খুলে বলতেই লজ্জায় গুটিয়ে গেল। মনে মনে নিশ্চয়ই প্রতিজ্ঞা করেছে, আর জীবনেও ক্লাসে ঘুমাবে না।

 

জুবায়ের খান, একাদশ শ্রেণি, মোহাম্মদপুর সরকারি কলেজ



মন্তব্য