kalerkantho


দেশ পরিচিতি

মৌরিতানিয়া

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



মৌরিতানিয়া

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ মৌরিতানিয়া। আফ্রিকার একাদশতম বৃহত্তর রাষ্ট্র এটি।

এর পশ্চিমে আটলান্টিক মহাসাগর, উত্তরে পশ্চিম সাহারা, উত্তর-পূর্বে আলজেরিয়া, পূর্ব ও দক্ষিণ-পূর্বে মালি এবং দক্ষিণ-পশ্চিমে সেনেগাল। প্রাচীন রাজ্য মৌরিতানিয়া থেকে দেশটির নামকরণ। প্রাচীন দেশটির স্থিতি ছিল খ্রিস্টপূর্ব তৃতীয় থেকে সপ্তম শতাব্দী পর্যন্ত, যা আজকের মৌরিতানিয়া থেকে অনেক উত্তরে। ওই অঞ্চলে বর্তমানে মরক্কো ও আলজেরিয়ার অবস্থান। মৌরিতানিয়ার প্রায় ৯০ শতাংশ ভূমিই সাহারার মধ্যে। দক্ষিণের দিকে বেশি ঘনবসতি।

একসময় ফরাসি উপনিবেশ ছিল। দেশটির প্রায় শত ভাগ লোকই মুসলমান। ২০ শতাংশ লোকের দৈনিক আয় ১.২৫ ডলারের নিচে।

দেশটির মানবাধিকার পরিস্থিতি সুবিধাজনক নয়। দাস প্রথা আজও বিরাজমান। যদিও আইনগভাবে ২০০৭ সালেই দাস প্রথা তুলে দেওয়া হয়। বিশ্বে দাসত্ব প্রথা আনুষ্ঠানিকভাবে বিলোপে মৌরিতানিয়াই হচ্ছে সর্বশেষ রাষ্ট্র। জনগণ মূলত কৃষি ও পশু পালনের ওপর নির্ভরশীল। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে খরা, অর্থনৈতিক অব্যবস্থা আর বৈদেশিক ঋণের কারণে পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। খনিজ সম্পদে সমৃদ্ধ হওয়ার পরও মৌরিতানিয়ার অর্থনৈতিক পরিস্থিতি ভালো নয়। রপ্তানির ৫০ শতাংশই লৌহ। এ ছাড়া সোনা ও তামার খনি রয়েছে।


একনজরে

পুরো নাম : মৌরিতানিয়া ইসলামী প্রজাতন্ত্র

রাজধানী ও সর্ববৃহত্ শহর : নুয়াকশুত

দাপ্তরিক ভাষা : আরবি

স্বীকৃত ভাষা : হাসানিয়া অ্যারাবিক, পুলার, সোনিনকে, ওলোফ ও ফরাসি

ধর্ম : ইসলাম

সরকার পদ্ধতি : ইউনিটারি সেমি-প্রেসিডেনশিয়াল রিপাবলিক

প্রেসিডেন্ট : মোহামেদ ওলদ আবদেল আজিজ

স্বাধীনতা : ফ্রান্স থেকে, ২৮ নভেম্বর ১৯৬০

আয়তন : এক লাখ ৩০ হাজার বর্গকিলোমিটার

জনসংখ্যা : চার লাখ ৬৭ হাজার ৫৬৪ জন

ঘনত্ব : প্রতি বর্গকিলোমিটারে ৩.৪ জন

জিডিপি : মোট ১৭.৪২১ বিলিয়ন ডলার

মাথাপিছু : চার হাজার ৪৮৮ ডলার

মুদ্রা : ওগুইয়া

জাতিসংঘের যোগদান : ২৭ অক্টোবর ১৯৬১।

-গ্রন্থনা : তামান্না মিনহাজ


মন্তব্য