kalerkantho


গণিত

উত্তরপত্রে বর্ণনাসহ সমাধান করে দেখাবে

মাকসুদা বেগম, প্রধান শিক্ষক, আইডিয়াল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মতিঝিল, ঢাকা

৭ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



উত্তরপত্রে বর্ণনাসহ সমাধান করে দেখাবে

  মোট ১০টি প্রশ্ন থাকবে

*    প্রশ্ন ১ (বহু নির্বাচনী)

     ২৪টি প্রশ্নের মধ্যে ২০টিই হবে যোগ্যতাভিত্তিক।

     পাঠ্য বইয়ের বিভিন্ন তথ্য, সূত্র ভালোভাবে আয়ত্ত করে প্রস্তুতি নিলে এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়া সহজ হবে।

       খাতায় প্রশ্নসহ পুরো অংশ লিখতে হবে না। শুধু প্রশ্নের ক্রমিক দিয়ে সঠিক উত্তরটুকু লিখলেই চলবে।

*    প্রশ্ন ২ (সংক্ষিপ্ত)

     ১০টি প্রশ্নের সবগুলোই হবে যোগ্যতাভিত্তিক।  প্রশ্নের উত্তরে গাণিতিক সমাধান না দেখিয়ে উত্তরটি সরাসরি খাতায় লিখবে, তাহলেই পুরো নম্বর পাবে।  

     যেমন—শিহাব ৫ দিনে ৫০টি অঙ্কের সমাধান করলে সে প্রতিদিন গড়ে কয়টি অঙ্কের সমাধান করে?

     এ ক্ষেত্রে রাফ করার জায়গায় হিসাব করে কিংবা মনে মনে হিসাব করে উত্তর পাওয়া যাবে ১০টি। উত্তরে ১০টি লিখলেই পুরো নম্বর পাওয়া যাবে।  

     এ অংশে ভালো করতে হলে পাঠ্য বইয়ের প্রতিটি অধ্যায়ের বক্স করা, তারকা চিহ্নিত তথ্যকথা ও উদাহরণগুলো ভালোভাবে দেখবে।

*    প্রশ্নের ধারা অনুযায়ী প্রশ্ন ৩ থেকে ৬ এবং ৯ হবে যোগ্যতাভিত্তিক

     প্রশ্নগুলো থাকবে এভাবে—

     ৩ নম্বর প্রশ্ন : চার প্রক্রিয়া সম্পর্কিত সমস্যাবলিবিষয়ক প্রশ্ন

     ৪ নম্বর প্রশ্ন : লসাগু ও গসাগু সম্পর্কিত

     ৫ নম্বর প্রশ্ন : সাধারণ ভগ্নাংশ সম্পর্কিত

     ৬ নম্বর প্রশ্ন : গড় সম্পর্কিত

     ৯ নম্বর প্রশ্ন : পরিমাপ ও সময় সম্পর্কিত

     উক্ত প্রশ্নগুলোতে একেকটি উদ্দীপক বা অঙ্কের অধীনে ৩-৪টি (ক, খ, গ, ঘ) প্রশ্ন থাকবে।

     যেমন—

     পিতা ও পুত্রের বর্তমান বয়সের সমষ্টি ৮০ বছর।

পিতার বয়স পুত্রের বয়সের ৪ গুণ।

     ক) পুত্রের বর্তমান বয়স কত?

     খ) পিতা ও পুত্রের বর্তমান বয়সের ব্যবধান কত?

     গ) ১৫ বছর পর পিতা ও পুত্রের বয়সের ব্যবধান কত হবে?

*    প্রশ্ন ৭ ও ১০-এ সাধারণ অর্থাত্ গতানুগতিক ধারার প্রশ্ন থাকবে। প্রতিটি প্রশ্নে ২টি করে প্রশ্ন থাকবে, ১টির উত্তর দিতে হবে।

     প্রশ্ন ৭ : দশমিক ভগ্নাংশ/শতকরা সম্পর্কিত সমস্যা নিয়ে প্রশ্ন হবে।

     প্রশ্ন ১০ : সময়/উপাত্ত বিন্যস্তকরণ সম্পর্কিত সমস্যা নিয়ে প্রশ্ন থাকবে।

*    প্রশ্ন ৮ : এ প্রশ্নে থাকবে জ্যামিতি (যোগ্যতাভিত্তিক)।

     প্রশ্নের নির্দেশনা অনুসারে চিত্র অঙ্কন করে বর্ণনা এবং বৈশিষ্ট্য লিখতে হবে।

খেয়াল রাখবে
*    প্রশ্ন ৩, ৪, ৫, ৬, ৭, ৯ ও ১০-এর উত্তর দেওয়ার সময় অবশ্যই উত্তরপত্রে বর্ণনাসহ সমাধান করে দেখাতে হবে। সংক্ষেপে যোগ, বিয়োগ, গুণ, ভাগ করে ফল বা উত্তর মিলিয়ে দিলে হবে না।

*    গণিতের সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে রাফ বা খসড়া একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। রাফ বা খসড়া সমাধানের পাশে থাকাই ভালো। প্রয়োজনে সমাধানের পাশের পৃষ্ঠায় রাফ করা যেতে পারে।

*    সমস্যা সমাধানের কোনো স্তরে গুণ বা ভাগ থাকলে তা সমাধানের পাশে করে দেখাতে হবে।

*    কোনো সংখ্যা বা রাশি ওভাররাইটিং করা যাবে না। কোনো ভুল হলে সম্পূর্ণ কেটে (এক টানে) স্পষ্ট করে লিখতে হবে।

*    সব প্রশ্নের উত্তর লেখা শেষ হলে প্রতিটি প্রশ্নের সমাধান মনোযোগ দিয়ে যাচাই বা রিভিশন দিতে হবে।

*    ভগ্নাংশের ক্ষেত্রে কাটাকাটি স্পষ্ট ও নির্ভুল হতে হবে।

*    জ্যামিতির চিত্র সব সময় পেনসিল দিয়ে আঁকতে হবে। চিত্র আঁকা ও বর্ণনায় যেন মিল থাকে, সে দিকে খেয়াল রাখতে হবে।


মন্তব্য