kalerkantho


বাংলা

৫, ৬, ৭ ছাড়া বাকি সব প্রশ্নই বই থেকে আসবে

লুৎফা বেগম, সিনিয়র শিক্ষক, বিএএফ শাহীন কলেজ কুর্মিটোলা, ঢাকা

৭ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



৫, ৬, ৭ ছাড়া বাকি সব প্রশ্নই বই থেকে আসবে

*    প্রশ্নপত্রে প্রথমেই একটি অনুচ্ছেদ থাকবে। এটি বই থেকে দেওয়া হবে।

এর আলোকে প্রশ্ন ১, ২, ৩ ও ৪-এর উত্তর দিতে হবে।  প্রশ্নের ক্রমানুসারে ধারাবাহিকতা বজায় রেখে উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করবে।

*    প্রশ্ন ১ : ৫টি বহু নির্বাচনী প্রশ্ন (এমসিকিউ) থাকবে। এমসিকিউর অপশনগুলো রোমান হরফে থাকতে পারে। উত্তর লেখার সময় প্রশ্নের ক্রমানুসারে উত্তরগুলো লিখতে হবে। যেমন—

     ১ নম্বর প্রশ্নের উত্তর

     ১. iii, ২. ii, ৩. iv, ৪. i, ৫. ii

*    প্রশ্ন ২ : ৩টি প্রশ্ন থাকে—ক, খ ও গ। প্রশ্নে যা জানতে চাওয়া হয় শুধু সেটুকুই লিখবে। প্রশ্নে দুটি অংশ থাকলে উত্তরও দুটি অংশে (দুই প্যারায়) লিখতে হবে।

     যেমন—

     ভাবুক ছেলেটি আসলে কে ছিলেন? তিনি ছেলেবেলায় কী কী নিয়ে ভাবতেন?

     উত্তর : ভাবুক ছেলেটি আসলে ছিলেন পরবর্তীকালের বিজ্ঞানী জগদীশচন্দ্র বসু।

     তিনি ছোটবেলায় মেঘের ডাক, বিদ্যুত্ চমকানো ও বাজ পড়ার কারণ নিয়ে ভাবতেন।

*    প্রশ্ন ৩ : কিছু শব্দ থাকবে, সেগুলোর অর্থ লিখতে হবে। উত্তর লেখার সময় প্রশ্নে থাকা শব্দগুলো লিখে পাশে ‘ড্যাস’ (—) চিহ্ন দিয়ে অর্থ লিখবে।

     যেমন : প্রশ্নে ‘নভোচারী’ শব্দ থাকলে এভাবে লিখতে হবে—

     নভোচারী—আকাশ ভ্রমণকারী

*    প্রশ্ন ৪ : অনুচ্ছেদটির মূলভাব লিখতে হবে। এ ক্ষেত্রে অনেকেই পুরো অনুচ্ছেদটিই উত্তরপত্রে লিখে দেয়। এমনটি না করে অনুচ্ছেদ ভালো করে পড়ে মাত্র ৫টি বাক্যে মূলভাব লিখবে।

*    দ্বিতীয় অনুচ্ছেদটি হবে যোগ্যতাভিত্তিক। এর আলোকে প্রশ্ন-৫, ৬ ও ৭-এর উত্তর দিতে হবে। অনুচ্ছেদটি পাঠ্য বইয়ের বাইরে থেকে আসবে, তবে পাঠ্য বইয়ের গল্প, কবিতা ও প্রবন্ধের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে করা হয়। কাজেই এসবের উত্তর দেওয়াটাও কঠিন হবে না।

*    প্রশ্ন ৫ : অনুচ্ছেদের আলোকে ৫টি বহু নির্বাচনী প্রশ্ন (এমসিকিউ) থাকবে। অনুচ্ছেদের ভেতরেই এর উত্তর থাকবে। তাই অনুচ্ছেদ গল্প-কবিতা যা-ই থাকুক, খেয়াল করে পড়বে।

*    প্রশ্ন ৬ : প্রশ্নের প্রদত্ত শব্দের অর্থ বুঝে শূন্যস্থান পূরণ করতে হবে। অর্থ না বুঝে উত্তর দিলে ভুল হওয়ার আশঙ্কা থাকে।

*    প্রশ্ন ৭ : তিনটি প্রশ্ন (ক, খ ও গ) থাকবে। প্রশ্নগুলো এক বা একাধিক অংশে থাকতে পারে।

     যেমন—অনুচ্ছেদ জনসংখ্যাবিষয়ক হলে প্রশ্ন হতে পারে—

     জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে সৃষ্ট পাঁচটি সমস্যা লেখো।

     অথবা, উল্লিখিত সমস্যা দূরীকরণে ৫টি (৫ বাক্যে) পরামর্শ দাও।

     এ প্রশ্নের উত্তরে বাক্যগুলো ১ থেকে ৫ পর্যন্ত ক্রমানুসারে লেখাই ভালো। নমুনা প্রশ্ন দেখলে আরো স্পষ্ট ধারণা পাবে।

*    প্রশ্ন ৮ : যুক্ত বর্ণ ভেঙে প্রতিটি যুক্ত বর্ণ দিয়ে একটি করে শব্দ তৈরি করতে হবে (মান ১) এবং সেই শব্দ দিয়ে বাক্য তৈরি করতে হবে

     (মান ১)।

     এভাবে পাঁচটি বাক্য তৈরি করে মূল শব্দটির নিচে  আন্ডারলাইন দিতে হবে।

*    প্রশ্ন ৯ : এ প্রশ্নের উত্তরে অনুচ্ছেদটি উত্তরপত্রে তুলে উপযুক্ত স্থানে বিরাম চিহ্ন বসাতে হবে। এই প্রশ্নের মানও ৫। এ জন্য বাংলা বইয়ের অন্তর্ভুক্ত গল্প ও প্রবন্ধের যেখানে পাঁচ ধরনের ‘বিরাম চিহ্ন’ আছে, সেই প্যারাগুলো ভালো করে পড়বে।

*    প্রশ্ন ১০ : বাক্য পড়ে এককথায় প্রকাশ করতে হবে।

*    প্রশ্ন ১১ : প্রশ্নে সমার্থক শব্দ, বিপরীত শব্দ অথবা ক্রিয়াপদের সাধু রূপ থেকে চলিত রূপ ইত্যাদি থাকে। এ ক্ষেত্রে প্রদত্ত শব্দগুলো উত্তরপত্রে তুলে পাশে ‘ড্যাস’ (—) চিহ্ন দিয়ে সঠিক উত্তরটি লিখতে হবে।

*    প্রশ্ন ১২ : যেকোনো কবিতার প্রথম অংশ, মাঝখানের অংশ অথবা শেষের অংশ থেকে ৬টি অথবা ৮টি চরণ তুলে দেওয়া থাকবে। চরণগুলো পড়ে ৩টি (ক, খ ও গ) প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। ‘গ’ অংশের উত্তরে ৫টি বাক্যে মূলভাব লিখতে হবে।

*    প্রশ্ন ১৩ : বিভিন্ন কাজের প্রয়োজনে ফরম পূরণ করার দরকার হয়। এ প্রশ্নেও এমন একটি ফরম থাকবে। যেমন—কোনো প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার আবেদন ফরম। প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে ফরমটি পূরণ করতে বলা হবে। পাঠ্য বইয়ের নমুনা ফরমের তথ্যগুলো দেখলে আরো ধারণা পাবে।

*    প্রশ্ন ১৪ : একটি ব্যক্তিগত চিঠি কিংবা আবেদনপত্র থাকতে পারে। এখানে সহজ কোনো বিষয়বস্তুর ওপর লিখতে বলা হবে।  যেমন—স্কুলে টিফিনের সুবিধার জন্য ক্যান্টিন খোলার আবেদন, খেলা দেখতে যাওয়ার জন্য সাময়িক ছুটির আবেদন ইত্যাদি।  নিজের মতো করেই লিখবে।  তবে চিঠি বা আবেদনের কাঠামো ঠিক করে লিখবে।

*    প্রশ্ন ১৫ : রচনার বিষয়বস্তুর সঙ্গে উপশিরোনাম বা সংকেত থাকবে। তাই একটু খেয়াল রাখলেই উপশিরোনাম ধরে ধরে লেখা যাবে। সংকেত থাকায় পরীক্ষার্থীদের দুশ্চিন্তা করতে হবে না। রচনার বিষয়বস্তু বই থেকেই আসবে। যেমন—‘বিদায় হজ’, ‘শহীদ তিতুমীর’ নামে দুটি গদ্য ও ‘শিক্ষাগুরুর মর্যাদা’ নামে যে কবিতাটি আছে, সেগুলোও রচনাকারে আসতে পারে। এ অংশে ভালো নম্বর পেতে হলে ভূমিকা থেকে উপসংহার পর্যন্ত পুরো অংশ লিখতে হবে।


মন্তব্য