English

অনলাইন

আজকের পত্রিকা

ফিচার

সম্পাদকীয়

পবিত্র কোরআনের আলো। ধারাবাহিক

আহলে কিতাবের মধ্যে বহু মানুষ ঈমান এনেছে

  • ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০

১০৭. বলে দাও, তোমরা এটা বিশ্বাস করো বা না করো (তাতে আল্লাহর কিছু যায় আসে না), এর আগে যাদের (আসমানি কিতাবের) জ্ঞান দেওয়া হয়েছিল তাদের কাছে যখনই (আল্লাহর বাণী) আবৃত্তি করা হয় তখনই তারা বিনয়ে সিজদায় লুটিয়ে পড়ে।

১০৮. তারা বলে, আমাদের রবই পবিত্রতম। আমাদের রবের প্রতিশ্রুতি কার্যকর হবেই।

১০৯. তারা অশ্রুসিক্ত নয়নে সিজদাবনত হয় এবং তা তাদের আন্তরিক বিনয়কে বৃদ্ধি করে। (সুরা : বনি ইসরাঈল, আয়াত : ১০৭-১০৯)

তাফসির : আগের আয়াতে বলা হয়েছিল, মহান আল্লাহ ধাপে ধাপে পবিত্র কোরআন অবতীর্ণ করেছেন। দীর্ঘ ২৩ বছর ধরে মহানবী (সা.)-এর ওপর পর্যায়ক্রমে কোরআন নাজিল হয়। কাফিররা কোরআন না মানার পক্ষে বহু অজুহাত দাঁড় করায়। অহেতুক তারা কোরআন নিয়ে প্রশ্ন তোলে। তাদের সমুদয় প্রশ্নের জবাব দিলেও তারা ঈমান আনবে না। তাদের আসল উদ্দেশ্য কোরআনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা। তাদের এ ধরনের মানসিকতার জবাবে আলোচ্য তিন আয়াতে বলা হয়েছে, আল্লাহ কারো ঈমান আনার মুখাপেক্ষী নন, কেউ ঈমান না আনলে আল্লাহর কোনো ক্ষতি হবে না। তাই এ ধরনের প্রশ্ন উত্থাপন করে লাভ নেই। এসব লোকের কাছে কোরআন ও কোরআনের নবীর কোনো মূল্য না থাকলেও আগের আসমানি কিতাবগুলো সম্পর্কে যাদের ধারণা আছে, তারা কোরআন পাঠ করে এর সত্যতা উপলব্ধি করে।

মহানবী (সা.) ও কোরআন সম্পর্কে আগের আসমানি কিতাবে বিভিন্ন বিবরণ ছিল। আহলে কিতাবের অনুসারী এক দল সত্যনিষ্ঠ মানুষ সেসব বিবরণ দেখে মহানবী (সা.) ও কোরআনের ওপর ঈমান নিয়ে আসে। তারা আল্লাহর ওয়াদা সত্য হিসেবে পেয়েছে। কোরআনের বাণী উপলব্ধি করে তারা আল্লাহর দরবারে সিজদায় লুটিয়ে পড়েছে। বহু আহলে কিতাব মহানবী (সা.)-এর আগমনের পরপরই তাঁর ওপর ঈমান নিয়ে এসেছে।

উল্লিখিত আয়াতগুলো থেকে একটি বিষয়ে পরিষ্কার যে আহলে কিতাবের মধ্যে বহু মানুষ ঈমান এনেছে। মহান আল্লাহ তাদের হেদায়েতের মহাদৌলত দান করেছেন। এ বিষয়ে একাধিক আয়াতে বর্ণনা আছে। এক আয়াতে এসেছে, তারা সবাই এক রকম নয়। আহলে কিতাবের মধ্যে অবিচলিত এক দল আছে, তারা রাতে আল্লাহর আয়াতসমূহ তিলাওয়াত করে এবং সিজদা করে। তারা আল্লাহ এবং পরকালে বিশ্বাস করে, সৎ কাজের আদেশ করে, অসৎ কাজে নিষেধ করে এবং তারা কল্যাণকর কাজে প্রতিযোগিতা করে। তারাই সজ্জনদের অন্তর্ভুক্ত। (সুরা : আলে ইমরান, আয়াত : ১১৩-১১৪)

অন্য আয়াতে এসেছে, আহলে কিতাবের মধ্যে এমন লোক আছে, যারা আল্লাহর প্রতি বিনয়াবনত হয়ে তাঁর ওপর ঈমান আনে। ঈমান আনে তোমাদের ওপর ও তাদের ওপর অবতীর্ণ হওয়া কিতাবের ওপর। তারা আল্লাহর আয়াত তুচ্ছমূল্যে বিক্রি করে না। এরাই তারা, যাদের জন্য আল্লাহর কাছে পুরস্কার আছে। নিশ্চয়ই আল্লাহ দ্রুত হিসাব গ্রহণকারী। (সুরা : আলে ইমরান, আয়াত : ১৯৯)

গ্রন্থনা : মাওলানা কাসেম শরীফ

উপ-সম্পাদকীয়- এর আরো খবর