English

অনলাইন

আজকের পত্রিকা

ফিচার

সম্পাদকীয়

হতাশা

শেষ চারে নেপালের সঙ্গী পাকিস্তান

  • ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০

ক্রীড়া প্রতিবেদক : গত কয়েক বছরে ভুটানের ফুটবল উন্নতির জোর লড়াই চালিয়েছে। প্রথমবারের মতো শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশকে হারিয়েছে তারা। কিন্তু ধারাবাহিকতা রাখা সম্ভব হয়নি। মালদ্বীপ, মালয়েশিয়ার কাছে ৭-০ গোলেও যে হেরেছে তারা। এবারের সাফেও পুরনো ভুটানকেই দেখা গেল। গ্রুপের ৩ ম্যাচে ৯ গোল হজম করে তারা বাড়ি ফিরছে। কাল শেষ ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে হার ৩-০-তে। তিন বছর আন্তর্জাতিক ফুটবলে ফেরা পাকিস্তান এ জয়ে সেমিফাইনালও নিশ্চিত করেছে।

বি গ্রুপে রানার্স-আপ হয়েছে তারা। প্রতিপক্ষ জানতে আজ মালদ্বীপ-ভারতের ম্যাচ পর্যন্ত করতে হচ্ছে। কাল ২০ মিনিটে সাদ্দামের বাড়ানো বলে সুযোগটা কাজেও লাগিয়ে ফেলেন রিয়াজ। পোস্টের ডান দিক থেকে চমৎকার কোনাকুনি শটে বল জালে জড়িয়ে দিয়েছেন। আগের দুই ম্যাচে গোলের খাতা খুলতে না পারা ভুটানের তারকা স্ট্রাইকার এদিন কিছুটা নিচে নেমে তিনিই বল তৈরির চেষ্টায় ছিলেন। কিন্তু যখন সুযোগ হলো, তখন বেঙ্গালুরু এফসিতে খেলা এই ফরোয়ার্ড এমনভাবে তা মিস করলেন যে ম্যাচ শেষে তা নিয়ে আলাদা করে হতাশাই প্রকাশ করেছেন ইংলিশ কোচ ট্রেভর মরগান। পোস্টের সামনে থেকে বলটা তিনি কী করে যে পেছনে মারলেন সে এক বিস্ময়। প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার আগেই পাকিস্তান ২-০ করে ফেলে। ওয়ান অন ওয়ানে কিভাবে গোল করতে হয় মোহাম্মদ আলীর বাড়ানো বলে তা-ই দেখিয়েছেন বশির। এগিয়ে আসা ভুটানি গোলরক্ষকের পাশ দিয়ে অনায়াসে পোস্টে পাঠিয়ে দিয়েছেন ড্যানিশ লিগে খেলা এই স্ট্রাইকার। রিয়াজ এর পরপরই ৩-০ করতে চলেছিলেন। কিন্তু দুর্ভাগ্য করাচি ইলেকট্রিকের এই স্ট্রাইকারের, জোড়া গোল তিনি পাননি। ক্রসবার কাঁপিয়ে ফিরে আসে তাঁর শট।

পুরো মাঠ দাবড়ে খেলা এই পাকিস্তানকে দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্য ক্লান্ত লেগেছে। বাংলাদেশের বিপক্ষে ওই স্নায়ুক্ষয়ী ম্যাচের এক দিন পরই আরেকটা ম্যাচ খেলা কঠিন। পাকিস্তান ৬০ মিনিটের পরই স্বাভাবিক গতি হারিয়েছে। এই সময়ে স্রেফ ভুটানিদের ফিরিয়ে দিয়েছে তারা। এর মধ্যেই কাউন্টার অ্যাটাকে বদলি নামা ফাহিম আহমেদ ঠিক ব্যবধান বাড়িয়ে নিয়েছেন। দলটির সেমিফাইনাল ভাগ্য কিছুটা হলেও ঝুলে ছিল পরের বাংলাদেশ-নেপাল ম্যাচের ওপর। যতটা সম্ভব গোল ব্যবধান বাড়িয়ে রাখারই লক্ষ্য ছিল। প্রথমার্ধের পারফরম্যান্সে ব্যবধান তো আরো বড়ই হওয়ার কথা। শেষ পর্যন্ত ৩-০ গোলের জয় নিয়েই দারুণ সন্তুষ্ট ছিলেন নোগায়েরা।

খেলা- এর আরো খবর