English

অনলাইন

আজকের পত্রিকা

ফিচার

সম্পাদকীয়

বড়লেখায় বিদ্যালয়ের টাকা আত্মসাৎ

  • বড়লেখা (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধি   
  • ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০

বড়লেখায় একটি বিদ্যালয়ের সাবেক কমিটির সভাপতি, সাবেক প্রধান শিক্ষক ও ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের যোগসাজশে স্লিপের ৪০ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে। বর্তমান পরিচালনা কমিটি দায়িত্ব নেওয়ার দীর্ঘদিন পেরিয়ে গেলেও ব্যাংক অ্যাকাউন্টের নাম পরিবর্তন করা হয়নি। উপজেলার উত্তর বর্নি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, উত্তর বর্নি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষা উন্নয়ন প্রকল্পের (স্লিপ) ৪০ হাজার টাকা বরাদ্দ পায়। এ বছরের ৩০ জুন বরাদ্দের টাকা স্কুলের সোনালী ব্যাংক হিসাবে জমা হয়। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি প্রধান শিক্ষক আব্দুল করিম এখান থেকে সুড়িকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বদলি হয়ে যান। ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পান তাঁর স্ত্রী সহকারী শিক্ষক রুবিয়া বেগম।

বর্তমান কমিটিকে না জানিয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক রুবিয়া বেগম, সাবেক প্রধান শিক্ষক আব্দুল করিম ও সাবেক সভাপতি রহিম উদ্দিন বুদু গত ৩০ জুলাই গোপনে সোনালী ব্যাংক থেকে টাকা তোলেন। সোনালী ব্যাংক বড়লেখা শাখার ব্যবস্থাপক হুমায়ুন আহমদ তাঁদের তিনজনের স্বাক্ষরে টাকা উত্তোলনের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বিদ্যালয়ের বর্তমান পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুল মোহিত জানান, বিদ্যালয়ের উন্নয়নকাজের জন্য গত জুন মাসে ৪০ হাজার টাকা বরাদ্দ আসে। তিনি ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককে স্লিপের টাকা উত্তোলনে বারবার তাগিদ দিলেও তা করেননি। পরে জানা যায়, বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক আব্দুল করিম ও সাবেক সভাপতি রহিম উদ্দিন বুদুর যোগসাজশে রুবিয়া বেগম গোপনে টাকা তুলে তা আত্মসাৎ করেছেন।

আব্দুল মোহিত অভিযোগ করে আরো বলেন, সভাপতির ছবি ও স্বাক্ষর নিয়ে ব্যাংক অ্যাকাউন্ট পরিবর্তন করার কথা থাকলেও এখনো তা করেননি ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক।

এ বিষয়ে বিদ্যালয়ের সাবেক সভাপতি রহিম উদ্দিন বুদু জানান, প্রধান শিক্ষক আব্দুল করিম গত ৩০ জুলাই ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক রুবিয়া বেগমের নামে ৪০ হাজার টাকার একটি চেকে তাঁর স্বাক্ষর নেন। তবে টাকা দিয়ে কী করেছে, তা তিনি জানেন না।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রফিজ মিয়া জানান, এ ঘটনাটি তিনি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।

প্রিয় দেশ- এর আরো খবর