English

অনলাইন

আজকের পত্রিকা

ফিচার

সম্পাদকীয়

চাঁদপুর যশোর ঝালকাঠিতে আগুনে পুড়ল ২৫ দোকান

  • প্রিয় দেশ ডেস্ক   
  • ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ, ঝালকাঠির নলছিটি ও যশোরে আগুন লেগে ২৫টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পুড়ে গেছে। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

চাঁদপুর প্রতিনিধি জানান, ফরিদগঞ্জ উপজেলায় আগুন লেগে ১৫টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পুড়ে গেছে। গতকাল রবিবার ভোরে গল্লাক পশ্চিম বাজারে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল ভোরে হঠাৎ করে বাজারের মিন্টু স্টোরে আগুন লেগে যায়। মুহূর্তেই আগুনের লেলিহান শিখা চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে ১৫টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পুড়ে যায়। স্থানীয়রা ও রামগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট এক ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। মিন্টু স্টোরে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এ কে এম মাহফুজুর রহমান ও থানার ওসি মো. শাহআলম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

যশোর অফিস জানায়, শহরের বড়বাজার হাটচান্নিতে গত শনিবার রাতে এক অগ্নিকাণ্ডে চারটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পুড়ে গেছে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে প্রায় দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স যশোর স্টেশনের সহকারী পরিচালক পরিমল কুণ্ডু বলেন, রাত পৌনে ১০টার দিকে মা এন্টারপ্রাইজ নামে একটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। ধারণা করা হচ্ছে, বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিটের কারণে আগুন লাগে। পরে সেখান থেকে পাশের আরো তিনটি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। যশোর কোতোয়ালি থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল বাশার জানান, খবর পেয়ে পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছান। তাঁরা স্থানীয়দের সহযোগিতায় ফায়ার সার্ভিসের সঙ্গে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করেছেন।

ঝালকাঠি প্রতিনিধি জানান, নলছিটিতে আগুনে ছয়টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান পুড়ে গেছে। শনিবার রাত ১০টার দিকে উপজেলার তালতলা বাজারে এ ঘটনা ঘটে। এতে ২৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।

ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা জানান, তালতলা বাজারের রাজীব হোসেনের পেট্রলের দোকানে বিদ্যুতের শর্টসার্কিট থেকে আগুন লাগে। মুহূর্তের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়ে পাশের দাকানগুলোতে। আগুনে বাজারের আবদুল জলিলের মুদি দোকান, আবদুর রব মোল্লার স্টেশনারি, এনামুল হোসেনের স্টেশনারি ও বিকাশ, মোজাম্মেলের কনফেকশনারি ও নূরে আলমের ফলের দোকান পুড়ে গেছে। খবর পেয়ে নলছিটি ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। রবিবার সকালে নলছিটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আশ্রাফুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

সুবিদপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান সিকদার বলেন, ক্ষতিগ্রস্তরা আমাকে জানিয়েছেন, আগুনে তাঁদের ২৫ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে। আমি একটি তালিকা তৈরি করে উপজেলা প্রশাসনের কাছে দিয়েছি।

প্রিয় দেশ- এর আরো খবর