English

অনলাইন

আজকের পত্রিকা

ফিচার

সম্পাদকীয়

ডিএসইর পিই বেড়েছে

  • নিজস্ব প্রতিবেদক   
  • ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০

লেনদেন ও মূল্যসূচক বৃদ্ধির সঙ্গে দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সার্বিক মূল্য আয় অনুপাত বা পিই বেড়েছে। কম্পানির আয় অনুপাতে শেয়ারের দাম বাড়লে পিই অনুপাতও বৃদ্ধি পায়।

ডিএসইর সাপ্তাহিক প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, আগের সপ্তাহের চেয়ে সদ্য শেষ হওয়া ২৬-৩০ আগস্ট সপ্তাহে পিই বেড়েছে ১.২২ শতাংশ। আগের সপ্তাহে পিই অনুপাত ছিল ১৫.৫৫। আর এই সপ্তাহে পিই দাঁড়িয়েছে ১৫.৭৪।

জানা যায়, সপ্তাহ শেষে ব্যাংক খাতের পিই রেশিও অবস্থান করছে ১০.১৮ পয়েন্টে। তথ্য-প্রযুক্তি খাতের ২২.৩২ পয়েন্টে, বস্ত্র খাত ১৮.১১ পয়েন্টে, ওষুধ ও রসায়ন খাতের ১৭.৫১ পয়েন্টে, প্রকৌশলী খাতের ১৭.১২ পয়েন্টে, বীমা খাতের ১০.২৬ পয়েন্টে, বিবিধ খাতের ২০.৪৩ পয়েন্টে, খাদ্য খাতের ১৮.৪৪ পয়েন্টে, চামড়া খাতের ১৪.৮৬ পয়েন্টে, সিমেন্ট খাত ৩৫.৭৩ পয়েন্টে, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত ১৪.৮১ পয়েন্টে, আর্থিক খাত ১৮ পয়েন্টে, ভ্রমণ ও অবকাশ খাতের ২৫.৭৭ পয়েন্টে, পেপার ১০৭.৪৪ পয়েন্টে, টেলিযোগাযোগ খাত ১৫.৫৯ পয়েন্টে, সেবা ও আবাসন খাত ১৬.০৬ পয়েন্টে, সিরামিক খাত ২৫.৫০ পয়েন্টে এবং পাট খাট (-) ৫৫.৮৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে।

ব্লক মার্কেটে লেনদেন ৩৫ কোটি টাকা : এদিকে ডিএসইতে সপ্তাহব্যাপী ব্লক মার্কেটে ২১ কম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে। টাকার অঙ্কে ৩৫ কোটি টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। কম্পানিগুলো হলো : ইফাদ অটোস, রহিম টেক্সটাইল, একমি ল্যাবরেটরিজ, ব্র্যাক ব্যাংক, গ্রামীণফোন, বাটা শু, ডিবিএইচ ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড, আরডি ফুড, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো, খুলনা পাওয়ার, রিপাবলিক ইনস্যুরেন্স, ইউনাইটেড পাওয়ার, স্কয়ার ফার্মাসিউটিক্যালস, ইস্টার্ন ব্যাংক, গ্ল্যাক্সোস্মিথক্লাইন, নর্দান জুট, প্যাসিফিক ডেনিমস, প্রাইম ব্যাংক, তাকাফুল ইসলামী ইনস্যুরেন্স, ন্যাশনাল হাউজিং ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট এবং প্যারামাউন্ট টেক্সটাইল।

জানা যায়, বিদায়ী সপ্তাহে এসব কম্পানির মোট ৩৫ কোটি ২৩ লাখ ৪০ হাজার টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। সবচেয়ে বেশি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে রহিম টেক্সটাইলের। কম্পানিটির সাত কোটি ছয় লাখ ৫০ হাজার টাকায় ২০ লাখ শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পাঁচ কোটি ২৮ লাখ ৬০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে ন্যাশনাল হাউজিংয়ের ও তৃতীয় সর্বোচ্চ চার কোটি ৩২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে একমি ল্যাবরেটরিজের।

শিল্প বাণিজ্য- এর আরো খবর