English

অনলাইন

আজকের পত্রিকা

ফিচার

সম্পাদকীয়

সড়কে মৃত্যুর মিছিল

জব্দ বাসে চাপা পড়ে এসআই উত্তমের মৃত্যু

  • নিজস্ব প্রতিবেদক   
  • ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০

রাজধানীর মিরপুর বেড়িবাঁধে দুর্ঘটনায় দায়ে জব্দ করা বাস থানার আনার সময় ওই বাসের নিচে চাপা পড়ে প্রাণ হারিয়েছেন এক পুলিশ কর্মকর্তা। গতকাল রবিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে শাহআলী থানাধীন রাইনখোলা মোড়ে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। ঈগল পরিবহনের ঘাতক বাসটি দ্বিতীয়বারের মতো জব্দ করা হয়েছে। আটক করা হয়েছে বাসটির পরিবর্তিত চালককেও।

মারা যাওয়া ওই পুলিশ কর্মকর্তার নাম উত্তম কুমার। তিনি রূপনগর থানায় সাব-ইন্সপেক্টর (এসআই) পদে কর্মরত ছিলেন। তাঁর বাড়ি টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলায়। তিনি দেড় বছর ধরে ওই থানায় কর্মরত ছিলেন। এর আগে শাহআলী ও পল্লবী থানায় কর্মরত ছিলেন। প্রাইভেট কারকে ধাক্কা দেওয়ার ঘটনায় দায়ের হওয়া মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ছিলেন এসআই উত্তম। তিনি মোহাম্মদপুরে ভাড়া বাসায় স্ত্রী ও দেড় মাসের এক কন্যাসন্তান নিয়ে থাকতেন। আইনি প্রক্রিয়া শেষে তাঁর মরদেহ আজ সোমবার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে বলে থানা সূত্রে জানা গেছে।

রাজধানীর মিরপুরে বেড়িবাঁধ এলাকায় ঈগল পরিবহনের জব্দকৃত বাসের নিচে চাপা পড়া মোটরসাইকেল। ছবি : কালের কণ্ঠ

পুলিশ জানায়, রূপনগরের বেড়িবাঁধ এলাকা দিয়ে যাওয়ার সময় জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের গাড়িকে ধাক্কা দেয় ঈগল পরিবহনের একটি গাড়ি। এতে প্রাইভেট কারটির বেশ ক্ষতি হয়। দুর্ঘটনার পর বাসটির চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়। পুলিশ বাসটি জব্দ করে। গত তিন দিন বাসটি ঘটনাস্থলেই পড়ে ছিল। গতকাল বিকেলে রূপনগর থানার সাব-ইন্সপেক্টর উত্তম কুমার সরকারের ওপর দায়িত্ব পড়ে বাসটি থানায় নিয়ে যাওয়ার। দায়িত্ববোধ থেকেই তিনি ঈগল পরিবহনের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তাদের তরফ থেকে অন্য একটি গাড়ির চালক বেলাল হোসেনকে পাঠানো হয়। বেলাল বেড়িবাঁধ থেকে গাড়িটি চালিয়ে থানায় নিয়ে যাচ্ছিলেন। আর সামনে মোটরসাইকেলে করে যাচ্ছিলেন এসআই উত্তম কুমার। শাহআলী থানাধীন রাইনখোলা মোড়ে পৌঁছানোর পর পেছন থেকে বাসটি উত্তম কুমারকে মোটরসাইকেলসহ চাপা দেয়। এতে তিনি ঘটনাস্থলেই মারা যান। ময়নাতদন্তের জন্য উত্তম কুমারের মরদেহ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল মর্গে নেওয়া হয়েছে।

এই ঘটনায় চালক বেলাল হোসেনকে আটক করেছে পুলিশ। আটকের পর তিনি পুলিশকে জানান, ব্রেক ফেল করায় তিনি বাসটি থামাতে পারেননি। এ ঘটনার পর বাসটি দ্বিতীয়বার জব্দ করা হয়েছে।

রূপনগর থানার ওসি শেখ মো. শাহ আলম জানান, ঈগল পরিবহনের এই ঘাতক বাস গত ২৯ আগস্ট মিরপুর বেড়িবাঁধের পানি উন্নয়ন বোর্ড এলাকায় একটি প্রাইভেট কারকে ধাক্কা দেয়। ওই ঘটনায় থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) হয়। পরে বাসটি জব্দ করা হয়। সেখান থেকে বাসটি ঈগল পরিবহনের অন্য এক চালককে দিয়ে রূপনগর থানায় আনার সময় এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। ওসি আরো জানান, এই ঘটনায় বাসটির চালক দুলাল হোসেনকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে একটি মামলা দায়ের হচ্ছে। বিষয়টি পরিকল্পিত কি না, তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

প্রথম পাতা- এর আরো খবর