English

অনলাইন

আজকের পত্রিকা

ফিচার

সম্পাদকীয়

যদি থাকে...

উৎসবের সঙ্গে বিশেষ খাবারের রয়েছে বিশেষ সম্পর্ক। তবে সেই খাবার যেন উৎসবের আনন্দকে ম্লান করে না দেয়। পরামর্শ দিয়েছেন প্রিভেন্টিভ মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. লেলিন চৌধুরী। কথা বলেছেন নাঈম সিনহা

  • ১৩ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০

হার্টের সমস্যা

গরুর ও খাসির মাংস বেশ চর্বিযুক্ত খাবার। এটি অতিরিক্ত খেলে আমাদের শরীরে কোলেস্টেরল বেড়ে যেতে পারে। যাঁদের হার্টের সমস্যা রয়েছে তাঁরা অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী পরিমাণমতো মাংস খাবেন। একেবারে চর্বি ছাড়া মাংস খেতে পারলে ভালো।

ডায়াবেটিস

ডায়াবেটিক রোগীরা কোরবানির সময় তাঁদের রুটিন ভুলে গেলে চলবে না। তাঁদের প্রোটিনের চাহিদা অনুযায়ী খাবারের সঙ্গে গরুর মাংস গ্রহণ করবেন। রুটিন ভঙ্গ করলে ভোগান্তি বাড়বে। খাবারের আগে-পরে নিয়মিত মাপতে হবে ডায়াবেটিস।

অ্যাসিডিটি

যাঁদের অ্যাসিডিটির সমস্যা রয়েছে তাঁরা খাবারের আগেই ওষুধ গ্রহণ করবেন। সতর্ক থেকে খাবার গ্রহণ করবেন। বেশি সমস্যা হলে দ্রুত চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করবেন। বেশি বেশি পানি পান করতে পারেন।

উচ্চ রক্তচাপ

যাঁদের ব্লাড প্রেসার রয়েছে তাঁরা চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে পরিমাণমতো গরুর মাংস খাবেন। মাপতে হবে প্রেসার। অবস্থা বেশি খারাপ হলে নিতে হবে চিকিৎসকের পরামর্শ।

অ্যাজমা বা অ্যালার্জি

যাঁরা ওজন কমাতে চান কিংবা যাঁদের অ্যাজমা বা এলার্জি রয়েছে তাঁদের সংযত থাকাই উত্তম। কারণ এক-দুইবার অতিরিক্ত মাংস খেয়ে নিজের ও স্বজনদের আনন্দ নষ্ট না করাই ভালো। দাদ আছে যাঁদের তাঁরা গরুর মাংস একেবারেই এড়িয়ে চলুন।

ঈদ উৎসব ২০১৮- এর আরো খবর