English

অনলাইন

আজকের পত্রিকা

ফিচার

সম্পাদকীয়

সিপাহি নেবে বিজিবি

সিপাহি জিডি পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। এইচএসসি পাস হলেই আবেদন করা যাবে। আবেদন করা যাবে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। বিস্তারিত জানাচ্ছেন আহমদ শুভ

  • ১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০

সীমান্তের অতন্দ্র প্রহরী হিসেবে কাজ করতে আগ্রহীদের খুঁজছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। সীমান্তরক্ষী বাহিনী সম্প্রতি ৯৩তম ব্যাচে সিপাহি (জিডি) পদে ভর্তির বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে। নিয়োগপ্রাপ্তরা ২০১৫ সালের জাতীয় বেতন স্কেল অনুযায়ী ৯০০০-২১৮০০ টাকা স্কেলে বেতন পাবেন। পাশাপাশি দেওয়া হবে বাড়িভাড়া, বাসস্থান ও অন্য সব সুবিধা। বিজ্ঞপ্তিটি ছাপা হয়েছে ৮ সেপ্টেম্বরের কালের কণ্ঠে। পাওয়া যাবে https://bit.ly/2oRaeFK লিংকেও।

আবেদনের যোগ্যতা

পুরুষ ও নারী উভয় প্রার্থী সিপাহি পদে আবেদন করতে পারবেন। আবেদনের জন্য ন্যূনতম এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। এসএসসি বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে জিপিএ ৩.০০ এবং এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষায় কমপক্ষে জিপিএ ২.৫০ পেতে হবে। ১৩ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে বয়স হতে হবে ১৮ থেকে ২৩ বছরের মধ্যে। পুরুষ প্রার্থীদের উচ্চতা ১.৬৭৬ মিটার বা ৫ ফুট ৬ ইঞ্চি, ওজন ৪৯.৮৯৫ কেজি বা ১১০ পাউন্ড, বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩২ ইঞ্চি এবং স্ফীত অবস্থায় ৩৪ ইঞ্চি হতে হবে। নারী প্রার্থীদের উচ্চতা ১.৫৭৪ মিটার বা ৫ ফুট ২ ইঞ্চি, ওজন ৪৭.১৭৩ কেজি বা ১০৪ পাউন্ড, বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ২৮ ইঞ্চি ও স্ফীত অবস্থায় থাকতে হবে ৩০ ইঞ্চি। উপজাতীয় পুরুষ প্রার্থীদের উচ্চতা ১.৬২৫ মিটার বা ৫ ফুট ৪ ইঞ্চি, ওজন ৪৭.১৭৩ কেজি বা ১০৪ পাউন্ড, বুকের মাপ স্বাভাবিক অবস্থায় ৩০ ইঞ্চি ও স্ফীত অবস্থায় ৩২ ইঞ্চি থাকতে হবে। উপজাতীয় মহিলা প্রার্থীদের উচ্চতা ১.৫২৪ মিটার বা ৫ ফুট, ওজন ৪৩.৫৪৪ কেজি বা ৯৬ পাউন্ড হতে হবে। সব প্রার্থীর দৃষ্টিশক্তি ৬ বাই ৬ থাকতে হবে। অবিবাহিত হতে হবে, তালাকপ্রাপ্তদের আবেদন গ্রহণযোগ্য হবে না। সাঁতার জানতে হবে। জাতীয় পর্যায়ের খেলোয়াড়, বিকেএসপি, বিদেশি ক্রীড়া একাডেমিতে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও সম্ভাবনাময় খেলোয়াড়দের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। এক জেলার বাসিন্দা অন্য জেলায় আবেদন করতে পারবে না।

নিবন্ধন যেভাবে

টেলিটক মোবাইলের মাধ্যমে নিবন্ধন করতে হবে। নিবন্ধন করা যাবে ১৫ সেপ্টেম্বর রাত ১২টা পর্যন্ত। প্রথমে মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে BGBspaceHSC Board KeywordspaceHSC RollspaceHSC Passing YearspaceSSC Board Keywordspace SSC RollspaceSSC Passing YearspaceHome District CodespaceUpazilla Name লিখে পাঠাতে হবে ১৬২২২ নম্বরে। উদাহরণ : BGB DHA 236098 2014 DHA 405698 2012 40 MIRPUR শিক্ষা বোর্ড কি-ওয়ার্ড ও জেলা কোড নম্বর বিজ্ঞপ্তিতে পাওয়া যাবে। এসএমএসে পাঠানো তথ্য যাচাই করে যোগ্য প্রার্থীদের ফিরতি এসএমএসে একটি পিন নম্বর পাঠানো হবে। পিন নম্বরসহ BGBspaceYES spacePIN NumberspaceContact Mobile Number লিখে আবার ১৬২২২ নম্বরে এসএমএস পাঠাতে হবে। পরীক্ষার ফি ১৫০ টাকা। দ্বিতীয় এসএমএস পাঠানোর সময় মোবাইলে পরীক্ষার ফি ও এসএমএস চার্জের জন্য মোট ১৬০ টাকা ব্যালান্স থাকতে হবে। আবেদন ফি কেটে রেজিস্ট্রেশন নম্বরসহ কনফার্মেশন এসএমএস পাঠানো হবে। এসএমএসটি পরবর্তী কার্যক্রমের জন্য সংরক্ষণ করতে হবে।

বাছাই প্রক্রিয়া

রেজিস্ট্রেশনের সময় দেওয়া প্রার্থীর মোবাইল নম্বরে এসএমএসের মাধ্যমে পরীক্ষার স্থান, তারিখ ও অন্যান্য তথ্য জানানো হবে। বিজিবির মোবাইল নম্বর ০১৭২৯০২৪৮৪৮, ০১৮৪৭১৬৯৭৭৭ অথবা ০১৫৫২১৪৬১৫০ নম্বর থেকে এসএমএস পাঠানো হবে। এসএমএসে উল্লিখিত তারিখে নির্দিষ্ট স্থানে বাছাই পরীক্ষার জন্য উপস্থিত হতে হবে। প্রথমেই নেওয়া হবে প্রাথমিক ডাক্তারি পরীক্ষা। বিজ্ঞপ্তিতে যে শারীরিক যোগ্যতা চাওয়া হয়েছে তা ঠিক আছে কি না দেখা হবে। বর্ণনা অনুযায়ী উচ্চতা, ওজন, বুকের মাপ, বুকের সম্প্রসারণ ও চোখের দৃষ্টিশক্তি যাচাই করা হবে। দাঁড়ানো অবস্থায় দুই হাঁটু একসঙ্গে মিলে যায় কি না তা পরীক্ষা করা হবে। পায়ের তালু দেখা হয়। শরীরের বাহ্যিক কোনো ত্রুটি বা চর্মরোগ আছে কি না পরীক্ষা করা হয়। প্রাথমিক ডাক্তারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলে লিখিত পরীক্ষার জন্য ডাকা হবে।

লিখিত ও স্বাস্থ্য পরীক্ষা

লিখিত পরীক্ষার জন্য ক্লিপবোর্ড ও কলম সঙ্গে নিতে হবে। সাধারণত ৫০ বা ১০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হয়। বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও সাধারণ জ্ঞান বিষয়ে প্রশ্ন থাকে। এসএসসি পর্যায়ের বইয়ের আলোকেই প্রশ্ন করা হয়। পরীক্ষায় কিছু এমসিকিউ বা বহু নির্বাচনী প্রশ্ন করা হয়। তবে বেশির ভাগ থাকে লিখিত প্রশ্ন।

বাংলা অংশে ব্যাকরণ থেকে কিছু প্রশ্ন থাকে। এককথায় প্রকাশ, বাগধারা, সমার্থক শব্দ, বিপরীত শব্দ, পারিভাষিক শব্দ, সন্ধিবিচ্ছেদ, কারক-বিভক্তি, সমাস পড়তে পারেন। লিখিত অংশে ভাব-সম্প্রসারণ, সারাংশ, সারমর্ম লিখন আসতে পারে। থাকতে পারে সংক্ষিপ্ত অনুচ্ছেদ লিখন। সাম্প্রতিক কোনো বিষয়ে বা নিজের সম্পর্কে কিছু লিখতে বলা হতে পারে। ব্যাকরণের জন্য নবম-দশম শ্রেণির বাংলা ব্যাকরণ বই পড়তে পারেন। এটি বেশ কাজে দেবে। ঘরে বসে লিখিত প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চর্চা করলে বিষয়টি সহজ হবে। ইংরেজিতে গ্রামার থেকে Verb, Tense, Preposition, Right form of verb, Narration, Fill in the gaps থেকে প্রশ্ন করা হয়। একটি প্যাসেজ অনুবাদ করতে বলা হতে পারে। ইংরেজি গ্রামারের মৌলিক জ্ঞান ভালো হলে ইংরেজিতে ভালো করা যাবে।

গণিতে পাটিগণিত, বীজগণিত ও জ্যামিতির প্রশ্ন আসে। ঐকিক নিয়ম, লাভ-ক্ষতি, লসাগু, গসাগু, ভগ্নাংশ নির্ণয়, সুদকষা, বীজগণিতের সূত্র, জ্যামিতির সংজ্ঞা দেখতে পারেন। গণিতের প্রস্তুতির জন্য অষ্টম থেকে দশম শ্রেণির পাঠ্য বইয়ের গাণিতিক সমস্যা সমাধান করলে কাজে দেবে।

সাধারণ জ্ঞানের জন্য বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াবলি, বর্ডার গার্ড, বিভিন্ন সামরিক বাহিনী সম্পর্কিত তথ্য ভালোভাবে জানতে হবে। লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের চূড়ান্ত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হবে। নির্বাচিতদের নেওয়া হবে হেপাটাইটিস-বি ভাইরাস শনাক্তকরণ পরীক্ষা। পরবর্তী সময়ে পুলিশ ভেরিফিকেশনের পর চূড়ান্তভাবে নিয়োগ দেওয়া হবে।

লাগবে যা যা

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার মূল বা সাময়িক সনদপত্র, স্থায়ী ঠিকানা ও জন্ম তারিখ উল্লেখপূর্বক সংশ্লিষ্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধানের দেওয়া প্রশংসাপত্র, স্থানীয় চেয়ারম্যান বা ওয়ার্ড কমিশনার সত্যায়িত অভিভাবকের অনুমতিপত্র, বাংলাদেশের স্থায়ী নাগরিকত্বের সনদপত্র, চারিত্রিক সনদ, অবিবাহিত সনদপত্র ও সদ্য তোলা ১০ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি সঙ্গে আনতে হবে। কোটা প্রমাণের জন্য প্রয়োজনীয় সব সনদ সঙ্গে রাখতে হবে।

ভর্তিসংক্রান্ত তথ্যের জন্য যেকোনো মোবাইল থেকে ০১৭৬৯৬০০৮৯৮ নম্বরে অথবা টেলিটক থেকে ১২১ নম্বরে ফোন করতে হবে। বিজিবির ওয়েবসাইটেও (www.bgb.gov.bd) পাওয়া যাবে প্রয়োজনীয় তথ্য।

চাকরি আছে- এর আরো খবর