English

অনলাইন

আজকের পত্রিকা

ফিচার

সম্পাদকীয়

বিমানবন্দরে কার্গো সার্ভিস সেবা ২৪ ঘণ্টা চালু রাখার নির্দেশ

  • কালের কণ্ঠ অনলাইন   
  • ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৮:৩৪

ফাইল ফটো

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কার্গো সার্ভিস সেবা ২৪ ঘণ্টা চালু রাখার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা জরুরিভিত্তিতে গ্রহণ করতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আমদানীকৃত মালামাল খালাস করার জন্য ব্যাংকসমূহের এলসি ওপেনিং ব্রাঞ্চগুলো শনিবারেও খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে কার্গো সার্ভিস সেবা ২৪ ঘণ্টা চালু রাখা, ওয়ানস্টপ সার্ভিস চালুকরণ ইত্যাদি বিষয়ে সরকারি ও বেসরকারি অংশীজনের অংশগ্রহণে আজ (১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক মতবিনিময় সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান এতে সভাপতিত্ব করেন। এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্য়ক জনাব আবুল কালাম আজাদ, এফবিসিসিআই, বিজিএমইএ-এর সভাপতিসহ বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারদের প্রতিনিধিগণ এবং সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বৃহস্পতিবার বিকেলে ব্যাংক থেকে Clear কৃত Airway Bill এর মালামাল শনিবার ডেলিভারি দেওয়ার প্রক্রিয়া গ্রহণ করা হবে এবং কাস্টমস্ প্রয়োজনীয় জনবলসহ উপস্থিত থাকবে।

সভায় অন্যান্য সিদ্ধাসমূহ হচ্ছে :

(১) ঢাকা বিমানবন্দরে কার্গো আগমনের পূর্বেই Pre-arrival processing সম্পন্ন করতে হবে। উল্লেখিত পদ্ধতিটি চালু করার জন্য জরুরিভিত্তিতে NBR থেকে SRO জারিকরতে হবে। Pre-arrival processing-এর জন্য Flow Chart তৈরী করার নির্দেশ দেওয়া হয়।

(২) প্রতি কার্যদিবসে মালামাল ডেলিভারি দেওয়ার জন্য রাত ৯টা পর্যন্ত Warehouse খোলা রাখার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এছাড়াও যদি কোন Airway Bill Pending থাকে তা ক্লিয়ারের উদ্দেশ্যে বর্ধিত সময়ের জন্য Warehouse খোলা রাখতে হবে।

(৩) দ্রুত Bill of Entry প্রসেসিং ও শুল্কায়ন কার্যক্রম ত্বরান্বিত করার জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) Server এবং কম্পিউটারসমূহের কনফিগারেশন বাড়ানোর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

(৫) আমদানীকৃত মালামাল খালাস করার ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট সংস্থাসমূহের দায়িত্ব এবং তা সম্পাদনের প্রক্রিয়া/পদ্ধতি বিষয়ে বেবিচকের সদস্য (অপারেশন এন্ড প্ল্যান) এর নেতৃত্বে গঠিত কমিটি Flow Chart তৈরী করবেন।

(৬) আমদানীকৃত মালামাল খালাস করার প্রক্রিয়াকে সহজ করতে হবে। এ প্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িত সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানসমূহ একজন করে ফোকাল পয়েন্ট নিয়োগ করবে। বেবিচকের সদস্য (অপারেশন এন্ড প্ল্যান) মূল ফোকাল পয়েন্টের দায়িত্ব পালন করবেন এবং বিষয়টি সমন্বয় করবেন।

(৭) বেবিচকের একটি হট লাইন থাকবে এবং এ সম্পর্কিত অভিযোগ ও পরামর্শ সেখানে দেওয়া যাবে।

(৮) এছাড়া বিমান বন্দরের যাত্রী সেবার মান উন্নয়ন করতে হবে। কার্গো সার্ভিস সেবার সঙ্গে জড়িত প্রতিষ্ঠানসমূহ তাদের Commitment-এর বিষয়ে টিম সদস্যদের উদ্বুদ্ধ করবে।

জাতীয়- এর আরো খবর