English

অনলাইন

আজকের পত্রিকা

ফিচার

সম্পাদকীয়

হরর ক্লাব : পেছনের সিটের সেই যাত্রী কে?

  • কালের কণ্ঠ অনলাইন   
  • ১ এপ্রিল, ২০১৭ ১৭:৫৮

বিশ্বের নানা দেশে বিভিন্ন সময় অনেকের ক্যামেরায় উঠে এসেছে ভূতের প্রমাণ, যার কোনো ব্যাখ্যা নেই। এসব ছবির সত্যাসত্য নিয়ে বিতর্ক থাকলেও বহু মানুষেরই শিরদাঁড়া দিয়ে শীতল স্রোত বয়ে যায় এ ছবি দেখে। এ লেখায় তুলে ধরা হলো তেমন এক প্রমাণ। ধারাবাহিকভাবে এ ধরনের বেশ কয়েকটি ছবি প্রকাশিত হচ্ছে কালের কণ্ঠে। আজ পাচ্ছেন তার ২২ তম পর্ব।

পেছনের সিটের সেই যাত্রী কে?

গাড়ির পেছনে জলজ্যান্ত একজন যাত্রী বসে ছিলেন। কিন্তু তার উপস্থিতি একেবারেই টের পাননি অন্যরা, তাই কি হয়? এমন ঘটনারই প্রমাণ পাওয়া গেল সেবার। কবরস্থানটির আগে থেকেই বদনাম ছিল। সেখানে অশুভ আত্মা বা ভূতের আনাগোনা রয়েছে, এমনটা অনেকেই বলত। এছাড়া এলাকাটাও নির্জন। এ কারণে তারা বেশি সময় সেখানে ছিলেন না। তার পরেও এমন একটি ঘটনা ঘটে গেল, যার কথা ভাবলেও তারা শিহরিত হন। ১৯৫৯ সালের ঘটনা এটি। এ সময় ম্যাবল চিনেরি নামে এক নারী তার স্বামীকে নিয়ে তার মায়ের কবরস্থানে গিয়েছিলেন। সে স্মৃতিকে ধারণ করে রাখতে তিনি সেখানে কয়েকটা ছবিও তোলেন। কবরস্থানের পাশে গাড়ির চালকের আসনে তার স্বামী বসে থাকা অবস্থাতেও তিনি একটি ছবি তোলেন। সে ছবিটি প্রিন্ট করার পরই কিছু একটা দেখে তিনি আশ্চর্য হয়ে যান। কারণ গাড়ির পেছনের সিটে বসা অবস্থায় দেখা যায় একজনকে। কিন্তু গাড়িতে এমন যাত্রীর খবর অন্য কেউ জানতেও পারেনি। কবরস্থানের পাশে গাড়ির পেছনের সে ব্যক্তি তাহলে কে ছিল? এ প্রশ্নের সমাধান হয়নি কখনোই।

হরর ক্লাব- এর আরো খবর