English

অনলাইন

আজকের পত্রিকা

ফিচার

সম্পাদকীয়

আমীর খসরুর করা রিটের শুনানি শেষ, আদেশ কাল

  • নিজস্ব প্রতিবেদক   
  • ১১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ১৬:৫৬

দুদকে হাজির হওয়ার জন্য দেওয়া নোটিশ চ্যালেঞ্জ করে বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর করা রিট আবেদনের ওপর শুনানি শেষ হয়েছে আজ মঙ্গলবার।

বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতির কে এম হাফিজুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ আগামী ১৬ সেপ্টেম্বর আদেশের জন্য দিন ধার্য করেছেন। আজ রিট আবেদনকারীপক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন ও ব্যারিস্টার আবদুল্লাহ আল মাহমুদ মাসুদ। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে ছিলেন অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান।

এ রিট আবেদনটি বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি আহমেদ সোহেলের হাইকোর্ট বেঞ্চে আজ মঙ্গলবার শুনানির জন্য কার্যতালিকায় ছিল। আজ সকালে শুনানির জন্য উপস্থাপন করা হলে আদালত এ রিট আবেদন শুনতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

এর আগে হাইকোর্টের আরো একটি বেঞ্চ অপারগতা প্রকাশ করেছিলেন। এ অবস্থায় বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতির কে এম হাফিজুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চে নেওয়া হয় রিট আবেদনটি। এই আদালতে আজই শুনানি হয়। গত ৩ সেপ্টেম্বর হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এ রিট আবেদন দাখিল করা হয়।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের যোগদানের বিষয়ে কুমিল্লার এক ব্যক্তির সঙ্গে আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীর কথোপকথনের অডিও প্রকাশের পর তার বিরুদ্ধে মামলা করে পুলিশ। তাকে গ্রেপ্তার করতে না পারলেও কুমিল্লার ওই ব্যক্তিকে (যার সেঙ্গ টেলিফোনে কথা বলেছিলেন আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী) আটক করে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। এ প্রেক্ষাপটে দুদক আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকে তলব করে গত ১৬ আগস্ট নোটিশ দেয় দুদক।

নোটিশে বলা হয়, বেনামে পাঁচ তারকা হোটেল ব্যবসা, ব্যাংকে কোটি কোটি টাকার অবৈধ লেনদেনসহ মানিলন্ডারিং করে বিভিন্ন দেশে অর্থ পাচারের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এ ছাড়া স্ত্রী ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যসহ নিজ নামে শেয়ার কেনাসহ জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগও অনুসন্ধান করা হচ্ছে। এ বিষয়ে ১০ সেপ্টেম্বর দুদকে হাজির হওয়ার দিন ধার্য ছিল। এরইমধ্যে একমাস সময় চেয়ে দুদকে আবেদন করেন বিএনপি নেতা। এ অবস্থায় দুদকের নোটিশ চ্যালেঞ্জ করে রিট আবেদন করেন তিনি। এ রিট আবেদন বিচারাধীন থাকায় আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী দুদকে হাজির হননি।

এর আগে দুই মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়েছেন আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

আইন-আদালত- এর আরো খবর